গুলশানের ঘটনা এক অশনিসংকেত। গণতান্ত্রিক পরিবেশ প্রতিষ্ঠা ও তীব্র আদর্শগত সংগ্রাম এখন সময়ের দাবি-কমরেড খালেকুজ্জামান

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান ০২ জুলাই ২০১৬ সংবাদপত্রে দেয়া এক বিবৃতিতে বলেন, ‘সুরক্ষিত অভিজাত এলাকা বিদেশি দূতাবাস ও নাগরিকদের কর্ম ও আবাসস্থল গুলশানে জিম্মি করে ২০ জনকে হত্যার যে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড হয়ে গেল তা হৃদয়বিদারক এবং অশনিসংকেতও বটে। কথিত ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠা, জীবনবিমুখতা ও হতাশা সৃষ্ট প্রতিহিংসা চরিতার্থ করা, আদর্শগত বিভ্রান্তিতে ও এ্যাডভান্সারিস্ট উত্তেজনায় ইহকাল-পরকালের মোক্ষলাভ, বিশ্বকে নিজের অস্তিত্ব জানান দেয়া, রাজনৈতিক ও দেশি-বিদেশি কায়েমী স্বার্থ উদ্ধারে চক্র ও চক্রান্তের প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ গুটি ব্যবহার ও তা মোকাবেলার অনুপযোগী পরিবেশ তৈরি ইত্যাদি কেন হল তা ভেবে দেখা দরকার। শাসকশ্রেণি ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষকারীবাহিনী কেন জনসম্পৃক্ত হতে পারছে না তাও আজ গভীরভাবে ভেবে দেখা দরকার।
উগ্র-ধর্মান্ধ শক্তির উত্থান ও সরকারি নির্লিপ্ততা দীর্ঘদিন ধরে এই পরিস্থিতির জন্ম দিয়েছে। ‘আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিত যথেষ্ট উন্নত’, ‘সরকার বিরোধী কর্মকাণ্ড’ ইত্যাদি বলে অতীতের ঘটনাকে পাশ কাটানোর ফলে পরিস্থিতি আজ জটিল রূপ নিয়েছে। যা চলছে আর যা ঘটছে তা আরও দুর্গতি ডেকে আনবে। একটা বড় ধরনের গণতান্ত্রিক সংস্কার এবং তার পরিপূরক বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি গড়ে তোলা ও তীব্র আদর্শগত সংগ্রাম এখন সময়ে দাবি। একথা আজ আরও গুরুত্ব দিয়ে ভাবতে হবে।’