ঢাকায় বামপন্থীদের সমাবেশ

গণতন্ত্র হরণ, গণজীবনের ক্রমবর্দ্ধমান সমস্যা-সংকট এবং দ্বি-দলীয় অপরাজনীতির বিপরীতে জনগণের নিজস্ব বিকল্প শক্তি গড়ে তোলার জন্য জনগণের প্রতি আহবান

দুর্নীতি-লুটপাটের বিরুদ্ধে ৯ আগস্ট দেশব্যাপী বিক্ষোভ

????????????????????????????????????

৩০ জুলাই ঢাকার রাজপথে বামপন্থীদের মিছিল

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দেশ চালাতে ব্যর্থ। গণতন্ত্র, গণতান্ত্রিক অধিকার ও সাধারণ মানুষের স্বার্থ এদের হাতে নিরাপদ নয়। তারা মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্নকে ভূলুণ্ঠিত করেছে। শুধুমাত্র ক্ষমতার স্বার্থে তারা জনগণের সম্পদ লুটপাট করে মুষ্টিমেয় মানুষকে লক্ষ কোটি টাকার পাহাড় গড়ার ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। বৈষম্য ক্রমাগত বাড়ছে। রাষ্ট্র পরিচালনায় ফ্যাসিবাদী প্রবণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। সন্ত্রাস, অপরাধ বাড়ছে। নির্বাচন ব্যবস্থা প্রহসনে পরিণত করা হয়েছে, গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করা হচ্ছে। তারা সাম্প্রদায়িক ও স্বৈরাচারী অপশক্তিকে সাথে নিতে ও মদদ দিতে দ্বিধা করে না।
এদের হাত থেকে দেশ ও মানুষ বাঁচাতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সমাজতন্ত্রের লক্ষ্যে জনগণের গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ও সরকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন জোরদার করতে হবে। নেতৃবৃন্দ ‘এ জন্য দেশের সকল বাম-গণতান্ত্রিক দল, সংগঠন ও ব্যক্তিবর্গের প্রতি ঐক্যবদ্ধ হয়ে দ্বি-দলীয় অপরাজনীতির বিপরীতে জনগণের নিজস্ব বিকল্প শক্তি গড়ে তোলার আহবান জানান।
আজ ৩০ জুলাই জাতীয় প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তারা উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে সমাপনি বক্তব্য দেন ও কর্মসূচী ঘোষণা করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।
বক্তব্য রাখেন, গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার সমন্বয়ক ও বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ এর সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান, সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক কমরেড মো. শাহ আলম, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল- বাসদ (মার্কসবাদী)’র কেন্দ্রীয় পরিচালনা কমিটির সদস্য কমরেড শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক কমরেড জোনায়েদ সাকি, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশরেফা মিশু, বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড বজলুর রশিদ ফিরোজ, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশাররফ হোসেন নান্নু, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহবায়ক হামিদুল হক। সমাবেশ পরিচালনা করেন, সিপিবি’র সহকারী সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাজ্জাদ জহির চন্দন।
৯ আগস্ট দেশব্যাপী বিক্ষোভ সমাবেশ
সমাবেশ থেকে ‘ঘুষ, দুর্নীতি, লুটপাট, অর্থ পাচার রুখে দাড়ানোর দাবিতে, আগামী ৯ আগস্ট দেশব্যাপী বিক্ষোভ সমাবেশ এর কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়।