দুর্বৃত্তায়িত দুর্নীতিগ্রস্ত বুর্জোয়া দুঃশাসনের বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান-নারায়ণগঞ্জে বাসদের জনসভায় কমরেড খালেকুজ্জামান

নারায়ণগঞ্জে বাসদের জনসভায় কমরেড খালেকুজ্জামান
মুক্তিযুদ্ধের মৌল চেতনা থেকে সরে গিয়ে দেশ শাসনের ফলেই জনগন আজ চরম সংকটে নিপতিত
দুর্বৃত্তায়িত দুর্নীতিগ্রস্ত বুর্জোয়া দুঃশাসনের বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান

271115-Comrade Khalequzzaman

বাসদের ৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং রাশিয়ার সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের ৯৮তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে আজ ২৭ নভেম্বর ২০১৫ বিকাল ৩টায় চাষাড়াস্থ শহীদ মিনারে জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা সমন্বয়ক নিখিল দাসের সভাপতিত্বে জনসভায় বক্তব্য রাখেন বাসদ কেন্দ্রিয় কমিটির সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক জননেতা কমরেড খালেকুজ্জামান। আরও বক্তব্য রাখেন বাসদ কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ, সিপিবির জেলা সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাসদ নেতা অসিত বরণ বিশ্বাস, বাসদ জেলা ফোরামের সদস্য এবং শ্রমিক ফ্রন্টের জেলা সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট জেলা সভাপতি সেলিম মাহমুদ।

271115-Gathering

কমরেড খালেকুজ্জামান বলেন – দেশের মানুষ আজ চরম সংকটে নিমজ্জিত। ফ্যাসিবাদী শাসনে গণতন্ত্র আজ নির্বাসিত। শাসক শ্রেণীর উন্নয়নের ঢাকের বাজনায় ঢাকা পড়ে যাচ্ছে বঞ্চিত মানুষের আহাজারি। রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী এমপিসহ সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন বাড়লেও গার্মেন্টসসহ বেসরকারী খাতের সংখ্যাগরিষ্ঠ শ্রমিক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন বাড়েনি। অথচ পে-স্কেল ঘোষনার সাথে সাথে জনগনের জীবন যাত্রার ব্যয় বহুগুন বেড়ে গেছে। আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানী তেলের দাম দুই তৃতীয়াংশ কমলেও সরকার গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির দাম বাড়িয়ে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করেছে। এর সাথে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস, দলীয় সন্ত্রাস, গোষ্ঠী সন্ত্রাস, ব্যক্তি সন্ত্রাস পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে। জনগনের জানমালের নিরাপত্তা দিতে সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। একের পর এক গুম, হত্যা, খুনের বিচার না হওয়ায় জনগন হতাশ। এই বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারনেই নিহত প্রকাশক দীপনের পিতা রাষ্ট্রের কাছে বিচার না চাওয়ার কথা বলেছেন।

সকল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন ও কার্যকর করার প্রতি জোর দিয়ে তিনি আরো বলেন যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত জামাতে ইসলামীকেও নিষিদ্ধ করতে হবে। যুদ্ধাপরাধীদের সকল সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সহায়তা দিতে হবে। গত ৪৪ বছর ধরে শাসকগোষ্ঠী মুক্তিযুদ্ধের মৌল চেতনা থেকে সরে গিয়ে রাষ্ট্র শাসন করার ফলেই দেশে আজ চরম সংকট তৈরী হয়েছে। তাই আজ আওয়ামী-বিএনপি দ্বি-দলীয় বুর্জোয়া ধারার বিপরীতে বাম বিকল্প শক্তি গড়ে তোলার জন্য জনগনের প্রতি আহ্বান জানান।

অন্যান্য নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জে গ্যাস সংকট নিরসন, ত্বকী-চঞ্চল সহ সকল হত্যাকান্ডের বিচার, শীতলক্ষ্যাকে দুষনমুক্ত ও শীতলক্ষ্যা ব্রীজ নির্মাণ, যৌক্তিক বাড়ী ভাড়া আইন কার্যকর করা, বাস ট্রেনসহ সকল গণপরিবহনে যৌক্তিক ভাড়া নির্ধারন ও যাত্রীসেবার মান বাড়ানো, ডিএনডির জলাবদ্ধতা নিরসনসহ বিভিন্ন দাবী তুলে ধরে বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবী জানান।