দেশে দেশে সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসন বন্ধ কর, ইরাক ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন দখলদার বাহিনী প্রত্যাহার কর

ইরাক দখল ও গণহত্যার ১২ বছরপূর্তি উপলক্ষে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সমাবেশে কমরেড খালেকুজ্জামান

দেশে দেশে সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসন বন্ধ কর, ইরাক ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন দখলদার বাহিনী প্রত্যাহার কর

 

DSCF8264 copy

আজ ইরাকে ইঙ্গ-মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের দখল ও গণহত্যার ১২ বছর পুর্তি। এ উপলক্ষে অবিলম্বে ইরাক থেকে ইঙ্গ-মার্কিন সৈন্য সম্পূর্ণ প্রত্যাহার, ইরাক-আফগানিস্থান দখল মুক্ত করা, লিবিয়া-ইরানসহ আরব-আফ্রিকা দখলের পাঁয়তারা বন্ধ করার দাবিতে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ এর উদ্যোগে আজ ২০ মার্চ ২০১৫ বিকেল ৪.৩০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর আহ্বায়ক কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ, নগর নেতা জুলফিকার আলী, খালেকুজ্জামান লিপন, প্রকৌশলী শম্পা বসু ও জনার্দন দত্ত নান্টু। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল হাইকোর্ট মোড়, তোপখানা রোড, পুরানা পল্টন, দৈনিক বাংলা হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে তোপখানা রোডে এসে শেষ হয়।

সমাবেশে কমরেড খালেকুজ্জামান বলেন,  আজ থেকে ১২ বছর আগে ২০০৩ সালের ২০ মার্চ ইরাকে মানব বিধ্বংসী অস্ত্র-রাসায়নিক অস্ত্র থাকার মিথ্যা বানোয়াট অভিযোগ তুলে ইঙ্গ-মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ আক্রমণ পরিচালনা করেছিল। গত ১২ বছর ধরে মার্কিন দখলদারিত্ব বজায় রয়েছে ইরাকে অথচ আজ পর্যন্ত কোন রাসায়নিক অস্ত্রের সন্ধান তারা দিতে পারেনি। এ থেকে স্পষ্ট যে, মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা এবং তেল লুণ্ঠনই ছিল হামলার মূল লক্ষ্য। এখন আবার মধ্যপ্রাচ্য-আফ্রিকার মুসলিম অধ্যুষিত দেশসমূহে নতুনভাবে দখলী অভিযানে নেমেছে। তারই অংশ হিসেবে লিবিয়ার, সিরিয়া, ইরানের উপর জাতিসংঘের সিল লাগিয়ে দখলের পাঁয়তারা করেছে। তাদের একটাই লক্ষ্য তেল-গ্যাস ও খনিজ সম্পদ লুণ্ঠন করা। তিনি বলেন, বিশ্ব জনমতকে উপেক্ষা করে মানব বিধ্বংসী রাসায়নিক অস্ত্রের মিথ্যা অজুহাতে তেল সম্পদ লুণ্ঠনের জন্যই যে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ ইরাকে হামলা দখলদারিত্ব ও গণহত্যা চালিয়েছে এটা আজ দিবালোকের মতো স্পষ্ট।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে ইঙ্গ-মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ আরববিশ্বের তেল সম্পদ করায়ত্ত ও লুট করার স্বার্থে একদিকে ইসরাইলী দস্যুবৃত্তির ঘাঁটি বানিয়েছে, অন্যদিকে সাম্রাজ্যবাদের প্রতি অনুগত রাজা, বাদশাহ, আমির, ওমরাহদের দ্বারা রাজতন্ত্র ও সামরিক কর্তাব্যক্তিদের দিয়ে স্বৈরতন্ত্র কায়েম রেখে জগত বিচ্ছিন্ন করে লুটপাট এর এক স্বর্গরাজ্য প্রতিষ্ঠা করতে নতুন করে যুদ্ধে নেমেছে।

DSCF8268 copy

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে ইরাক-আফগানিস্থান দখল মুক্ত করে লিবিয়া, সিরিয়া, ইরানসহ আরব-আফ্রিকা দখলের সাম্রাজ্যবাদী পাঁয়তারা বন্ধ করার জন্য সারা বিশ্বের গণতন্ত্রীকামী জনগণকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান।

নেরতৃবৃন্দ আরো বলেন, ইরাক, মধ্যপ্রাচ্যসহ সারা দুনিয়ায় একদিকে সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসন-লুণ্ঠন-দখলদারিত্ব চলছে অপরদিকে সাম্রাজ্যবাদের মদদে মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক জঙ্গীগোষ্ঠী ধর্মের নামে সন্ত্রাস-গণহত্যা চালিয়ে পুরোকীর্তি-ঐতিহ্য ধ্বংস করে মধ্যযুগীয় বর্বরতায় ফিরিয়ে নিতে চাইছে। ফলে আজ বিশ্বব্যাপী সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসন ও ধর্মীয় জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে গণতন্ত্রমনা বিশ্ব জনমতকে সোচ্চার হতে হবে।

নেতৃবৃন্দ সাম্রাজ্যবাদের মোড়ল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ ভারতীয় সাম্রাজ্যবাদের বাংলাদেশকে ঘিরে অপতৎপরতা এবং বাংলাদেশের নতজানু শাসকশ্রেণির বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ^াসী সকল বাম-গণতান্ত্রিক দেশপ্রেমিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলন গড়ে তোলারও আহ্বান জানান।