বগুড়ায় বাসদের সমাবেশে দ্বি-দলীয় ধারার বিপরীতে বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্পশক্তি নির্মাণের দাবি

121116-spb-bogra-2বাসদের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ১২ নভেম্বর’১৬ বগুড়া জেলা শাখার উদ্যোগে সাতমাথায় বেলা ৩:০০ টায়  র‌্যালি শেষে সমাবেশ অনুুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাসদ জেলা আহ্বায়ক অ্যাডঃ সাইফুল ইসলাম পল্টু। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাসদ জেলা সদস্য সচিব সাইফুজ্জামান টুটুল, জেলা কমিটির সদস্য মাসুদ পারভেজ, দিলরুবা নুরী, শহিদুল ইসলাম, রাধা রানী বর্মন প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার  ৪৫ বছরেও এদেশের মানুষের বাঁচার অধিকার পূরণ হয়নি। শ্রমিক পায় নি তার ন্যায্য মজুরী, কৃষক ফসলের দাম না পেয়ে সর্বস্বান্ত হয়েছে। বাণিজ্যিকরণ-বেসরকারিকরণের ফলে জনগণের শিক্ষা-চিকিৎসা আজ বাজারের ব্যয়বহুল পণ্যে পরিণত হয়েছে। দেশে ৩ কোটিরও বেশি বেকার, ৬ কোটি ১০ লাখ শ্রমজীবী মানুষ শ্রমের ন্যায্য দাম পায় না। অন্যদিকে দেশে খেলাপী ঋণের পরিমান প্রায় ৫৫ হাজার কোটি টাকা। কালো টাকা, দুর্নীতি-লুটপাটের ফলে দেশে কোটিপতির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ১৪ হাজার।
121116-spb-bogra-1গ্যাস-কয়লাসহ সাগর ও মাটির প্রাকৃতিক সম্পদ বিদেশী কোম্পানীর স্বার্থে ইজারা দেয়া হচ্ছে। সুন্দরবন ধ্বংস করে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণচুক্তির মাধ্যমে প্রাণ-প্রকৃতি ও পরিবেশ ধ্বংশের আয়োজন চলছে।
জনজীবনের নিরাপত্তা শিকেয় তুলে আইন-শৃংখলা বাহিনীর হাতে বিচার বহির্ভূত হত্যা-গুম চলছে। প্রতিদিনই চলছে তনু, মিতু, আফসানা, খাদিজার মতো নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ। এর থেকে পাঁচ বছরের শিশুও রেহাই পাচ্ছে না। শাসকগোষ্ঠীর নানা আশ্রয়-প্রশ্রয়ে জঙ্গীবাদ-মৌলবাদী গোষ্ঠীর আস্ফালনে দেশের মানুষ অসহায়। গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতাল পল্লীতে পুলিশি হামলা ও জমি দখল সহ  সংখ্যালঘু হিন্দুদের উপর ধারবাহিকভাবে যে সাম্প্রদায়িক আক্রমণ চলছে তা এই মানুষদের আরো বেশি অসহায়ত্বের মধ্যে ফেলেছে, তাদের বাড়ি-ঘর ছাড়তে বাধ্য করা হচ্ছে। দ্রব্যমূল্যের  উর্দ্বগতি বাড়ী-ভাড়া, গাড়ী-ভাড়া, গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি, যানজট, জলাবদ্ধতা, বিদ্যুৎ সংকট সহ নানাবিধ সমস্যায় আজ মানুষ জর্জড়িত।
দেশের মানুষ নির্বাচিত-অনির্বাচিত, সামরিক-বেসামরিক স্বৈরশাসন দেখেছে। গণতান্ত্রিক সরকার কিংবা বিধিব্যবস্থা দেখেনি। স্বাধীনতার পর মুক্তিযুদ্ধের আকাঙ্খার বিপরীতে রাষ্ট্র ও সরকার পরিচালনার ফলে আজ এই অবস্থায় এসে দেশ দাঁড়িয়েছে। মানুষ এই দুর্বিষহ পরিস্থিতি থেকে মুক্তি চায়। তাই দেশেরে বিদ্যমান সংকট সমাধানে ও জনগণের ন্যায়সঙ্গত দাবিতে আন্দোলন গড়ে তোলা জরুরী। দ্বি-দলীয় ধারার বিপরীতে বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্পশক্তি নির্মাণ আজ সময়ের দাবি। এই আন্দোলন কর্মসূচীতে নেতৃবৃন্দ সর্বস্তরের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।