বিশেষ বিধানের নামে মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৬ বছর করা চলবে না

Human Chain-3-041215-SSF-SWF copyবাল্যবিবাহ নিরোধ আইনের খসড়ায় মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স শর্ত সাপেক্ষে ১৬ বছর না করার দাবিতে সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট এর উদ্যোগে আজ ৪ ডিসেম্বর ২০১৫ শুক্রবার সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি প্রকৌশলী শম্পা বসুর সভাপতিত্বে ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি রুখসানা আফরোজ আশার পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট গণসঙ্গীত শিল্পী মাহমুদুজ্জামান বাবু, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ-এর ঢাকা মহানগর শাখার সদস্য খালেকুজ্জামান লিপন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক রোকেয়া চৌধুরী রেখা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় সভাপতি জনার্দন দত্ত নান্টু, সাধারণ সম্পাদক ইমরান হাবীব রুমন, দপ্তর সম্পাদক নাসিরুদ্দিন প্রিন্স, ইডেন কলেজ শাখার সভাপতি মুক্তা বাড়ৈ প্রমূখ।

Human Chain-1-041215-SSF-SWF copyবক্তারা বলেন, দারিদ্র, যৌতুক, নিরাপত্তাহীনতা, অসচেতনতা, অশিক্ষা, কুসংস্কার ইত্যাদি যে সকল কারণে বাল্য বিয়ের হার বেশি সেগুলো দূর করার কোন বিশেষ উদ্যোগ না নিয়ে আইন করা হচ্ছে মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স কমানোর। এই আইন হলে যুগ যুগ ধরে এর কুপ্রভাব আমাদের সমাজে থাকবে।
আইনের শর্ত হচ্ছে বাবা-মার সম্মতি, তার মানে মেয়ের অমতে এবং জোরপূর্বকও তাকে বিয়ে দেওয়া আইনসম্মত বলে গণ্য হবে। আবার বিয়ের এই বয়স জাতিসংঘ ঘোষিত আর্ন্তজাতিক শিশু অধিকার সনদেরও লঙ্ঘন। ১৮ বছরের আগে সে ভোট দিতে পারবে না, তার নিজেস্ব ব্যাংক এ্যকাউন্ট থাকবে না, সম্পত্তির উত্তরাধিকারী হতে পারবে না, ফলে একজন অসহায় শিশুকে এই আইনের মাধ্যমে কোথায় ঠেলে দেওয়া হবে?
বক্তারা আরও বলেন, নারীদের সম্পত্তির উত্তারধিকারে সমান অধিকার দেওয়া হচ্ছে না। সিডও সনদের ২টি ধারা এখনো সরকার অনুমোদন দেয়নি। নারীদের সামনে এগিয়ে যাবার আইন না করে পিছিয়ে দেবার আইন করা হচ্ছে।
মানববন্ধন থেকে বিয়ের বয়স কমানোর প্রতিক্রিয়াশীল সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সকল নারী সংগঠন বাম প্রতিশীল গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক শক্তি বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ বিশিষ্টব্যক্তি গোষ্ঠীকে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানানো হয়। একইভাবে সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধিতে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়।