ব্রাহ্মণবাড়িয়া, হবিগঞ্জ ও গোপালগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থানে সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়ি-ঘরে হামলা, লুটপাট, নারী-শিশু নির্যাতন ও মন্দির ভাংচুরের ঘটনার দোষীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি

spb-031016-11ব্রাহ্মণবাড়িয়া, হবিগঞ্জ ও গোপালগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়েরর বাড়ি-ঘরে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীদের হামলা, লুটপাট, নারী-শিশু নির্যাতন ও মন্দির ভাংচুরের ঘটনার প্রতিবাদে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ এর উদ্যোগে আগামীকাল ৩ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় শাহবাগ জাতীয় যাদুঘরের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর শাখার আহ্বায়ক কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নগর কমিটির সদস্য সচিব জুলফিকার আলী, আবদুর রাজ্জাক, আহসান হাবিব বুলবুল, শম্পা বসু, নাসির উদ্দিন প্রিন্স প্রমুখ। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল শাহবাগ থেকে শুরু হয়ে তোপখানা রোডে এসে শেষ হয়।
spb-031016-2সমাবেশে নেতৃবৃন্দ, ফেসবুকে প্রচারিত ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় আতংক ও উত্তেজনা বিরাজ করার বিষয়ে জেলার সিভিল প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীকে জানানোর পরও উগ্র ধর্মবাদীদের সমাবেশের অনুমতি দেয়া ও সংখ্যালঘু জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত না করে প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা চরম দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে শুধু নয় ঐ সমস্ত সমাবেশে ইউএনও, ওসি’র বক্তব্য রাখার বিষয়টি উগ্র ধর্মবাদী সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীদেরকে হামলা চালাতে উৎসাহী করেছে। ফলে প্রশাসনের ঐ সকল ব্যক্তিরও অপসারন ও আইনের আওতায় আনা প্রয়োজন। ফেসবুকে আপত্তিকর ছবি প্রকাশ করার অজুহাতে রামু বৌদ্ধ বিহার, পাবনার সাথিয়াসহ বিভিন্ন স্থানে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বাড়িঘর, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে হামলা চালানো হয়েছিল। সে সব ঘটনার সাথে যুক্তদের শাস্তি কার্যকর হয়নি।
নেতৃবৃন্দ বলেন, গত বছরেও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সুরসম্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ’র বসত ভিটায় সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনা ঘটিয়েছিল ধর্মীয় সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীরা, সে ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা না হওয়ায় একের পর এক সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটে চলেছে।
নেতৃবৃন্দ মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস মোবাবেলায় সকল গণতান্ত্রিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ প্রদান ও দোষীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।