রাজন, রাকিব, রবিউল, আদিবাসী খালকোসহ শিশু নির্যাতন-হত্যার প্রতিবাদে এবং দোষীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

SSF-SWF-SKM-070815-Pic-3সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ও শিশু কিশোর মেলার উদ্যোগে ৭ আগস্ট সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শিশু-কিশোরদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং সারাদেশে শিশু হত্যা, নির্যাতন, ধর্ষণের সাথে যুক্ত সকল অপরাধীর গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী শম্পা বসু। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাসদ ঢাকা মহানগরের সদস্য সচিব জুলফিকার আলী, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সহ-েসভাপতি আবদুর রাজ্জাক, প্রগতিশীল আইনজীবী ফ্রন্টের সদস্য সচিব এ্যাডভোকেট জহিরুল ইসলাম মোল্লা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রিন্স, ঢাকা নগরের সভাপতি রুখশানা আফরোজ আশা, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের আহ্বায়ক প্রীতিলতা এবং শিশু কিশোর মেলা’র সংগঠক আরেফিন রানা। সমাবেশ পরিচালনা করেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের ইডেন কলেজ শাখার সভাপতি মুক্তা বাড়ৈ।

SSF-SWF-SKM-070815-Pic-2সমাবেশে বক্তারা বলেন, গত কয়েকদিনের মধ্যে ঘটে গেল শিশু নির্যাতন ও হত্যার লোমহর্ষকারী কয়েকটি ঘটনা। আদিবাসী শিশু খালকো, খুলনার রাকিব, বরগুনার রবিউল, গারো বালিকাসহ আরো অনেক শিশু নির্যাতন, ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনা ঘটেছে। গতমাসে সিলেটে নির্মমভাবে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছিল ১৩ বছরের শিশু সামিউল আলম রাজনকে। মধ্যযুগীয় বর্বর কায়দায় একেরপর এক এসকল হত্যাকাণ্ডে সারাদেশের মানুষ স্তব্ধ। গত তিন মাসে ৬৯ জন শিশুকে নির্মম নির্যাতন করে খুন করা হয়েছে অথচ এখন পর্যন্ত এর একটি ঘটনারও বিচার হয়নি। ভুক্তভোগীরা সকলেই দেশের শ্রমজীবী মানুষের সন্তান। আর এই বিচারহীনতার কারণেই নানা ধরণের পৈশাচিক কায়দায় একের পর এক হত্যাকান্ড ঘটিয়ে চলেছে নরপশুরা। বক্তার অবিলম্বে এই সকল হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত দোষী ব্যক্তিদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেন।

পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল প্রেস ক্লাব থেকে শুরু হয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।