শহীদ ডা. সামছুল আলম মিলন দিবসে বাসদের শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ

271118-SPB-2ডা. মিলন দিবসে শহীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ এর পক্ষ থেকে ২৭ নভেম্বর ২০১৮ সকাল ৮:১৫টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন ডা. মিলনের সমাধীতে এবং সকাল ৮-৪৫টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার সংলগ্ন ডা. মিলন স্মৃতি স্তম্ভ (নিঝুম)-এ পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। পুষ্পমাল্য অর্পণকালে উপস্থিত ছিলেন বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশীদ ফিরোজ, নগর নেতা আবদুর রাজ্জাক, শম্পা বসু, মাঈন উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ।
271118-SPB-3 copyশ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণকালে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে কমরেড খালেকুজ্জামান বলেন, ২৭ নভেম্বর সামরিক স্বৈরাচারবিরোধী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের বীর শহীদ ডা. সামছুল আলম খান মিলনের ২৮তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৯০ সালের এই দিনে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলন যখন তুঙ্গে তখন সামরিক জান্তার লেলিয়ে দেয়া সন্ত্রাসীদের গুলিতে শহীদী মৃত্যুবরণ করেন ডাঃ মিলন। ডা. মিলনের শহীদী আত্মদানের মাধ্যমে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন বেগবান হয় এবং ৬ ডিসেম্বর ছাত্র-জনতার গণঅভ্যুত্থানে স্বৈরচারী এরশাদ সরকারের পতন ঘটে। কিন্তু স্বৈরাচারের পতন হলেও দীর্ঘ ২৮ বছরেও মিলন হত্যার সুষ্ঠু বিচার হয়নি, গণতন্ত্র সুপ্রতিষ্ঠিত হয়নি। মিলনের প্রকৃত খুনীদের বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হয়নি। বরং জনগণ গণআন্দোলনের মাধ্যমে যাকে প্রত্যাখ্যান করে পতন ঘটিয়েছে শাসকশ্রেণি তাদের পুনর্বাসন করেছে। যার পরিণতিতে আজকের এই রাজনৈতিক সংকটের সৃষ্টি।
ডা. মিলনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন ও স্বৈরতান্ত্রিক ব্যবস্থার পরিবর্তে গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য বাসদ সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহ্বান জানান। একই সাথে ডা. মিলন হত্যার পুণ: তদন্ত সম্পন্ন করে বিচার ও প্রকৃত খুনীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।