সাভারের আল মুসলিম গ্রুপের ষড়যন্ত্রমুলক কার্যক্রমের শিকার গর্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের সাংগঠনিক স¤পাদক সৌমিত্র কুমার দাস এর বিরূদ্ধে দয়েরকৃত ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার কর

DSCF0729 copyসাভারের আল মুসিলম গ্রুপের ষড়যন্ত্রমুলক কার্যক্রম বন্ধ এবং গার্মন্টেস শ্রমিক ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক স¤পাদক ও সাভার-আশুলিয়া শিল্পাঞ্চল শাখার সভাপতি সৌমিত্র কুমার দাসের বিরূদ্ধে দায়েরকৃত ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আজ ১৪ আগষ্ট ২০১৫, শুক্রবার,সকাল ১০-৩০ টায়, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সংগঠনের সভাপতি আহসান হাবিব বুলবুল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি খালেকুজ্জামান লিপন, খায়রূল কবির, সাধারণ স¤পাদক সেলিম মাহমুদ, সহ-স¤পাদক জাহাঙ্গীর আলম গোলক,অর্থ-স¤পাদক সাইফুল ইসলাম শরিফ, দফতর স¤পাদক হাসনাত কাবির প্রমুখ। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক আবু নাঈম খান বিপ্লব।

DSCF0737 copyসমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, সাভারের আল-মুসলিম গ্রƒপের আন্তর্গত এ.কে.এম নিটওয়্যার লি: এর শ্রমিক কমলাকে গত ৭/৩/২০১৫ তারিখে মাতৃত্বকালীন সময়ের প্রাপ্য সুবিধা চাওয়ার আপরাধে কারখানা কতৃপক্ষ বিনানোটিশে এবং আইনানুগভাবে প্রাপ্য পাওনা পরিশোধ ছাড়ায় কারখানা থেকে বের করে দেয়। সে সময় ইন্ডাষ্ট্রিয়াল পুলিশ কিংবা শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তারা আধিকার বঞ্চিত নারী শ্রমিক কমলার পাশে দাড়াঁয়নি। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সর্বোচ্চ ডিগ্রি নিয়ে ভোগ সর্বস্ব জীবনের পথে পা না বাড়িয়ে, শ্রমজীবী মানুষের ন্যায় সংগত অধিকার আদায়ের সংগ্রামকেই জীবনের ব্রত হিসাবে নিয়েছেন যে মানুষটি সেই সৌমিত্র কুমার দাস সেদিন আধিকার বঞ্চিত নারী শ্রমিক কমলার পাশে দাড়িয়ে ছিলেন। কমলা কে শ্রম আদালতে মামলা করার সাহস যুগিয়েছিলেন। এটাই ছিল সৌমিত্র দাসের অপরাধ। আর কমলার অপরাধ সে কারখানা কর্তৃপক্ষের বেআইনি কাজের প্রতিবাদ করেছে। মালিক-কর্তৃপক্ষের অসৎ শ্রমাচরনের প্রতিবাদ করার এই দু:সাহস দমন করতেই আল-মুসলিম গ্রুপ ষড়যন্ত্র করে মানিকগঞ্জ থানায় গত ১০/০৮/২০১৫ ইং তারিখে সৌমিত্র কুমার দাস এবং কমলার বিরুদ্ধে মামলা করিয়েছে। ১১/০৮/২০১৫ ইং তারিখ রাত্রে সৌমিত্র কুমার দাস এর সন্ধানে মানিকগঞ্জ ও সাভার থানা পুলিশ যখন অভিযান চালায় এবং কমলা কে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় তখন পুলিশের গাড়িতে আল-মুসলিম গ্রুপের নিরাপত্তা সহ-মহাব্যবস্থাপক ফরহাদ উপস্থিত ছিলেন। পুলিশের গাড়িতে ফরহাদের উপস্থিতি প্রমান করে, আল-মুসলিম গ্রুপের ষড়যন্ত্রে এই মামলা দায়ের হয়েছে। নেতৃবৃন্দ হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, অবিলম্বে সৌমিত্র কুমার দাস ও নারী শ্রমিক কমলার বিরুদ্ধে দায়ের কৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে, অন্যথায় সাভার সহ দেশের সকল গার্মেন্টস শিল্পাঞ্চলে মালিক শ্রেণীর ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ আন্দোলনের কঠোর কর্মসূচীর মাধ্যমে মামলা প্রত্যাহার করতে বাধ্য করা হবে। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল প্রেসক্লাব,হাইর্কোট, তোপখানা রোড এলাকা প্রদিক্ষণ করে।