হামলা-গ্রেপ্তার করে আন্দোলন থেকে বামপন্থীদের হঠানো যাবে না

Rally SPB-CPB-170915বিদ্যুৎ ও গ্যাসের অযৌক্তিক মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার ও দাম কমানোর দাবিতে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) ও বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ আহূত গতকালের রাজপথে অবস্থান কর্মসূচিতে রংপুর, কুমিল্লা, কিশোরগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পুলিশ ও আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীদের হামলা এবং গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে সিপিবি-বাসদ আয়োজিত প্রতিবাদ-বিক্ষোভে সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ বলেছেন, জনগণের দাবিকে পাশ কাটিয়ে সরকার ক্ষমতায় থাকতে পারবে না। হামলা-গ্রেপ্তার-নির্যাতন করে আন্দোলন থেকে বামপন্থীদের হঠানো যাবে না। গণআন্দোলনের মাধ্যমেই সরকারকে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে।
দেশব্যাপী প্রতিবাদ বিক্ষোভের অংশ হিসেবে আজ ১৭ সেপ্টেম্বর বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ-বিক্ষোভে সভাপতির বক্তৃতায় কমরেড জাফর এসব কথা বলেন। সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন সিপিবি’র প্রেসিডিয়াম সদস্য আহসান হাবিব লাবলু ও বাসদ-এর কেন্দ্রীয় নেতা বজলুর রশীদ ফিরোজ। সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক ও ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার। সমাবেশটি পরিচালনা করেন সিপিবি’র ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা. সাজেদুল হক রুবেল। সমাবেশে সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা মনজুরুল আহসান খান, বাসদ-এর সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামানসহ সিপিবি-বাসদ-এর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সমাবেশে কমরেড জাফর আরো বলেন, বর্তমান সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়, তাই জনগণের প্রতি সরকারের কোন দায়বদ্ধতা নেই। সরকারের দায়বদ্ধতা লুটেরাদের প্রতি। জনগণের সমর্থন না থাকায় বলপ্রয়োগ করে সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। কিন্তু নির্যাতন করে কেউ কোনদিন ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি, এ সরকারও পারবে না। সরকারের হামলা-মামলা-নির্যাতন উপেক্ষা করেই সিপিবি-বাসদসহ বামপন্থীরা জনগণের ন্যায্য দাবি আদায় করে নেবে।
তিনি রাজপথে অবস্থান কর্মসূচিতে হামলাকারী পুলিশ, আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ সন্ত্রাসীদের প্রেপ্তার ও বিচার দাবি করেন।
আহসান হাবিব লাবলু বলেন, সরকার এখন কোন প্রতিবাদ সহ্য করতে পারছে না। হামলা করে প্রতিবাদকারীদের কণ্ঠ রোধ করতে চাইছে। গণতন্ত্রের কণ্ঠ রুদ্ধ করে সরকার ক্ষমতা স্থায়ী করতে পারবে না। সরকারের ফ্যাসীবাদী প্রবণতার বিরুদ্ধে জনগণের ঐক্যবদ্ধ লড়াই গড়ে তুলতে হবে।
বজলুর রশীদ ফিরোজ বলেন, বিশ্ববাজারে তেলের দাম তিন ভাগের এক ভাগে নেমে আসায় যেখানে বিদ্যুতের দাম কমানোর কথা সেখানে দাম বাড়ানো সম্পূর্ণ অন্যায় এবং গণবিরোধী সিদ্ধান্ত। অবিলম্বে গ্যাস-বিদ্যুতের দাম কমাতে হবে। না হলে সরকারকে আরো কঠোর কর্মসূচির মুখোমুখি হতে হবে।
সংহতি জানিয়ে সাইফুল হক বলেন, এ সরকারের ক্ষমতায় থাকার কোন নৈতিক অধিকার নেই। মূল্যবৃদ্ধিসহ নানা কায়দায় সরকার লুটেরাদের স্বার্থ রক্ষা করছে। সরকার অযৌক্তিভাবে গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে। বামপন্থীরা ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করে এই গণবিরোধী সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারে সরকারকে বাধ্য করবে।
আব্দুস সাত্তার, গ্যাস ও বিদ্যুতের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহারে সরকারকে বাধ্য করতে ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলন গড়ে তোলার জন্য সকল বাম-প্রগতিশীল রাজনৈতিক দল ও সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।