Author Archive

ত্রাণ তৎপরতায় অংশগ্রহণের জন্য দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান-খালেকুজ্জামান

বন্যার্তদের পর্যাপ্ত ত্রাণ সরবরাহ ও পুনর্বাসনের জন্য সরকারের প্রতি দাবি বানভাসী মানুষের পাশে দাঁড়াতে এবং ত্রাণ তৎপরতায় অংশগ্রহণের জন্য দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান-খালেকুজ্জামান বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান আজ ১৬ আগস্ট ২০১৭ সংবাদপত্রে দেয়া এক বিবৃতিতে সারা দেশে ন্যার ভয়াবহতায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বন্যার্তদের জন্য পর্যাপ্ত ত্রাণ সরবরাহ এবং পুনর্বাসনের

অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে ছাত্র ফ্রন্টের কর্মীদের প্রতি আহ্বান

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ইমরান হাবিব রুমন এবং সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রিন্স একযুক্ত বিবৃতিতে সারাদেশে বন্যাপরিস্থিতি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন। নেতৃবৃন্দ সারাদেশের সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের কর্মীদের পানিবন্দী অসহায় মানুষকে উদ্ধার, চিকিৎসা, সেবা-শুশ্রুষা, খাবার, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ নিশ্চিতকরণ ও ত্রাণ সামগ্রী সংগ্রহ করে তা দুর্গতদের মাঝে বিতরণ ইত্যাদি মানবিক কাজে ঝাঁপিয়ে পড়ার

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়কে কেন্দ্র করে শাসক শ্রেণির দলগুলোর মধ্যে যে ধরনের বাক বিতণ্ডা শুরু হয়েছে তা অনভিপ্রেত-বাসদ

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির এক সভা ১৪ আগস্ট ২০১৭ সকাল ১১:৩০টায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ, জাহেদুল হক মিলু ও রাজেকুজ্জামান রতন। সভার এক প্রস্তাবে সকল সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানসমূহকে গণতন্ত্রের উপযোগি কার্যকারিতা সম্পন্ন করে তোলার জন্য

ঢাকায় বামপন্থীদের সমাবেশ

গণতন্ত্র হরণ, গণজীবনের ক্রমবর্দ্ধমান সমস্যা-সংকট এবং দ্বি-দলীয় অপরাজনীতির বিপরীতে জনগণের নিজস্ব বিকল্প শক্তি গড়ে তোলার জন্য জনগণের প্রতি আহবান দুর্নীতি-লুটপাটের বিরুদ্ধে ৯ আগস্ট দেশব্যাপী বিক্ষোভ আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দেশ চালাতে ব্যর্থ। গণতন্ত্র, গণতান্ত্রিক অধিকার ও সাধারণ মানুষের স্বার্থ এদের হাতে নিরাপদ নয়। তারা মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্নকে ভূলুণ্ঠিত করেছে। শুধুমাত্র ক্ষমতার স্বার্থে তারা জনগণের সম্পদ লুটপাট

বর্তমান পরিস্থিতি ও করণীয় : বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি কোন পথে?

১৯৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধের স্বাধীনতাত্তোর ৪৬ বছরের স্বৈরশাসন, অপশাসন ও দুঃশাসনের পরিণতিতে এক চরম সংকটময় পরিস্থিতির মুখে পড়েছে। ক্ষমতার পালা বদলকারীদের ক্ষমতার দ্বন্দ্বে দুই রাষ্ট্রপতি হত্যা, জেল হত্যা, রাজনৈতিক নেতা-কর্মী হত্যা, সৈনিক হত্যা, সামরিক বাহিনীকে ক্ষমতায় টেনে আনা, ক্ষমতার মারমুখী খেলা সামলাতে রেফারি হিসাবে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আনা এবং তাকে অকার্যকর ও বাতিল করা, ভোটকে ভেল্কির