দুর্নীতি লুটপাট বন্ধ কর-জ্বালানি তেল, এলপি গ্যাস ও টিসিবি’র পণ্যের মূল্য কমিয়ে জনগণের ভোগান্তি কমাও-বাসদ

  •  
  •  
  •  

SPB-061121-6জ্বালানি তেল ডিজেল, কেরোসিন, এলপি গ্যাস ও টিসিবি’র পণ্যের বর্ধিত মূল্য কমানোর দাবিতে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ ঢাকা মহানগর শাখার উদ্যোগে ৬ নভেম্বর ২০২১ বিকেল ৪টায় পল্টন মোড়ে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাসদ ঢাকা মহানগর আহ্বায়ক কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাসদ ঢাকা মহানগর শাখার সদস্য সচিব জুলফিকার আলী, সদস্য খালেকুজ্জামান লিপন, ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি আল কাদেরী জয়, মহিলা ফোরাম নেত্রী রুখশানা আফরোজ আশা ও চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের নেতা জসিম উদ্দিন।
সমাবেশে বক্তাগণ বলেন, পাশের দেশে তেল পাচারের ও আন্তর্জাতিক বাজারে মূল্য বৃদ্ধির অজুহাত দেখিয়ে মূল্য বৃদ্ধির ঘোষণা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক। সরকার শুধু মাত্র বিভিন্ন পর্যায়ে শুল্ক ১৭ টাকা কমালে মূল্য বৃদ্ধির কোন দরকার নেই বলে নেতৃবৃন্দ উল্লেখ করেন। সরকারি শুল্ক ও অন্যান্য খরচ কমালে দাম না বাড়িয়ে বরং কমানো সম্ভব। আন্তর্জাতিক বাজারে মূল্য বৃদ্ধির অজুহাত দেখিয়ে এখন সরকার লস করছে সেই কথা বলছে। কিন্তু গত ৭ বছর আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কম থাকার পরও দেশে দাম না কমিয়ে সরকার ৪০ হাজার কোটি টাকার বেশি মুনাফা করেছে। এই মুনাফার একটা অংশ এখন ভর্তুকী হিসেবে দিলেও দাম বাড়ানোর প্রয়োজন হতো না। তেল পাচারের অজুহাতও ভূয়া কারণ তেল পকেটে করে পাচার করা যায় না। তাহলে জনগণের ট্যাক্সের টাকায় বেতন নেয়া পুলিশ, বিজিবি কেন পাচার রোধ করতে পারে না?
বক্তাগণ আরও বলেন, জ্বা লানি তেল ডিজেল, কেরোসিন ও ফার্নেস অয়েল এর মূল্য বৃদ্ধির অভিঘাত দেশের ১৭ কোটি মানুষের উপর পড়বে। কারণ ডিজেলের উপর আমাদের কৃষি, পরিবহন, শিল্প এবং বিদ্যুৎ উৎপাদন নির্ভরশীল। একদিকে তেলের মূল্য বৃদ্ধি অন্যদিকে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য দ্রব্যের অস্বাভাবিক দামে জনজীবন অতিষ্ঠ তখন টিসিবিও পণ্যের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। টিসিবি জনগণকে সুলভ মূল্যে নিত্যপণ্য সরবরাহের কথা থাকলেও তারা এখন একটি মুনাফা লোভী প্রতিষ্ঠানের মত বাজারদর অনুযায়ী দাম নির্ধারণ করছে। ফলে মূল্য বৃদ্ধির প্রভাবে এই করোনাকালে আয় কমে যাওয়া, কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের জীবনে নাভিশ্বাস উঠছে।
বক্তাগণ অবিলম্বে জ্বালানি তেল, এলপি গ্যাস ও টিসিবি’র পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির অযৌক্তিক ও গণবিরোধী সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে গ্রাম-শহরে রেশনিং চালু, শুল্কসহ অন্যান্য সরকারি খরচ কমিয়ে জ্বালানি তেলের দাম কমিয়ে জনগণের ভোগান্তি কমানোর আহ্বান জানান। নেতৃবৃন্দ মূল্য বৃদ্ধির বিরুদ্ধে দেশব্যাপী কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ ডিজেল, কেরোসিন, এলপি গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোট আহুত আগামী ৮ নভেম্বর ২০২১ সোমবার জ্বালানি মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচি এবং দেশব্যাপী বিক্ষোভ সফল করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।
SPB-061121-7সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল পল্টন, মুক্তাঙ্গন, জিরো পয়েন্ট, গুলিস্তান, বঙ্গবন্ধু এভিনিউ, বায়তুল মোকাররম হয়ে বিজয়নগর, সেগুনবাগিচা এলাকা প্রদক্ষিণ করে।


  •  
  •  
  •  

Translate »